রূপবিশেষজ্ঞদের মতে চেহারায় বয়সের ছাপকে দূরে রাখতে যেসব সবজির ওপর ভরসা করা যায় তাদের মধ্যে করলা অন্যতম। করলা চামড়ার ভাঁজ দূর করতে সাহায্য করে। আসুন জেনে নেই কীভাবে করলা ব্যবহার করলে চেহারায় বয়সের ভাঁজ দূর করা যাব’ে।

1.করলায় রয়েছে প্রচুর ভিটামিন সি। তাই ত্বককে টানটান রাখতে এর জুড়ি নেই। প্রতিদিন করলা সি’দ্ধ করে তাতে লেবু ও লবণ যোগ করে খান। এতে ত্বকের জৌলুস বজায় থাকবে দীর্ঘদিন।

2.করলার রসের সঙ্গে কম’লালেবুর রস মিশিয়ে তা মুখে মাখলেও উপকার পাবেন। এই মিশ্রণ মুখে লাগিয়ে অ’পেক্ষা করুন কিছুক্ষণ। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে নিন। মৃ’তকোষ ঝরিয়ে উজ্জ্ব’লতা আনে এই মিশ্রণ।

3.করলা র’ক্তের মধ্যেকার ক্ষ’তিকর পদার্থকে বিন’ষ্ট করে র’ক্তকে পরিশু’দ্ধ রাখে। যার প্রভাব এসে পড়ে ত্বকেও। তাই ত্বক থেকে বয়সের ছাপ সরাতে ও ত্বককে সুন্দর রাখতে প্রতিদিন সকালে করলার রসও যেতে পারেন।

4.করলার বীজ সরিয়ে, তা বেটে মুখে লাগান। স’প্ত াহে তিন দিন এই ফেসপ্যাক ব্যবহার করলেই ত্বকের যৌ’বন ফিরবে রাতারাতি।

নিয়মিত এলাচ চা পানের বিস্ময়কর উপকারিতা জেনে নিন
আমা’দের মধ্যে অনেকেরই প্রতিদিন চা খাওয়ার অভ্যাস রয়েছে। বিভিন্ন রকম চায়ের মধ্যে নিজের পছন্দের চা বেছে নেন চা প্রিয় মানুষেরা। এদের মধ্যে কেউ কেউ আবার চায়ের স্বাদ বাড়ানোর জন্য এলাচ ব্যবহার করেন। যা স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী।

শরীরের অতিরিক্ত ওজন কমানো, ‘হতাশা, উচ্চ র’ক্তচাপ মোকাবেলা করতে এলাচের জুড়ি নেই। এছাড়াও ডায়াবেটিস প্রতিরোধেও এলাচের ভূমিকা অ’পরিসীম। যাদের মুখে দুর্গন্ধ রয়েছে তারা দুর্গন্ধ দূর করার জন্য নিয়মিত এলাচ চিবিয়ে খেতে পারেন। এছাড়া চায়ের সঙ্গে মিশিয়েও পান করতে পারেন।

বৈজ্ঞানিক গবেষণা বলছে, এলাচে থাকা অ্যান্টিঅক্সিজেড্যান্ট, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি হাইপোলিপিডেমিক বৈশি’ষ্ট্যগু’লো র’ক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। রান্না ছাড়াও এলাচ খাওয়ার ফলে শারীরিক বিভিন্ন সমস্যা দূর হয়। প্রতিদিন এলাচ খাওয়ার ফলে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান হয়।

এলাচ চা: প্রতি ১ কাপ চায়ের জন্য দুইটি এলাচ প্রথমে পিষে নিন। এবার গরম পানিতে পিষে নেয়া এলাচ, চা পাতা এবং দুধ দিয়ে দিন। তৈরি হয়ে গেলো আপনার এলাচ চা। এলাচ দেয়ার ফলে চায়ের স্বাদ বৃ’দ্ধি পাবে এবং এটি আপনার স্বাস্থ্যের উপকার করবে। তবে এক্ষেত্রে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর’্শ নিয়ে নিবেন।

এলাচ-গোল মর’িচ চা: দুই কাপ পানি গরম করে নিন। তারপর এতে ২টি এলাচ, ২টি লবঙ্গ, ২টি পুরো কালো মর’িচ এবং হাফ কাপ দারুচিনি দিন। প্রায় আধা ঘণ্টার মতো ফুটিয়ে নিন।

এরপর দুধ এবং পানি মিশিয়ে গরম করতে থাকুন। এলাচ অ্যাসিডিটির সমস্যা প্রতিরোধে সাহায্য করে। এই চা নিয়মিত পানের ফলে ডাইজেস্টিভ সিস্টেমকে সক্রিয় রাখে এবং হজম শক্তি বৃ’দ্ধি করে। এছাড়াও পেটের বদহজম নিরাময়েও কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

কালো চা : ২টি এলাচ খোসা ছাড়িয়ে ফুটন্ত গরম পানিতে দিয়ে দিন। এবার চা পাতা দিয়ে গরম ‘হতে দিন এবং কিছুক্ষণ পর নামিয়ে চা পান করুন। চাইলে এর সঙ্গে পছন্দসই কিছু যোগ করতে পারেন। মি’ষ্টি বা অতিরিক্ত মি’ষ্টির জন্য মধু বা চিনি মিশিয়ে নিন। তবে হঠাৎ করেই ডায়েটে পরিবর্তন আনার আগে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর’্শ নিবেন।