খালেদা জিয়ার জামিন আ’বেদন নিয়ে এইমাত্র যে রা’য় দিলেন আ'দালত

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নী’তি মা’মলায় দ’ণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খা’রিজ করে দিয়েছেন আ'দালত।বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার বেলা ৩ টায় এ আদেশ দেন। খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন আইনজীবী জয়নুল আবেদীন। এ সময় ব্যারিস্টার মওদুদ আহম'দ, খন্দকার মাহবুব হোসেন, মাহবুব উদ্দিন খোকন, বদরুদ্দোজা বাদল, কায়সার কামাল, সগির হোসেন লিওন ও ফারুক হোসেন আ'দালতে উপস্থিত ছিলেন।রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে অংশ নেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

গতকাল দুপুরে বেগম জিয়ার চিকিৎসা বি'ষয়ক প্রতিবেদন হাইকোর্টে দাখিল করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সুপ্রিম কোর্টের স্পেশাল অফিসার মো. সাইফুর রহমান বি'ষয়টি নিশ্চিত করেন। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিএসএমএমইউর আইনজীবী তানিয়া আকতার বিএনপি চেয়ারপারসনের স্বাস্থ্য প্রতিবেদন সুপ্রিম কোর্ট রেজিস্ট্রার জেনারেলের কাছে হস্তান্তর করেন বলে জানান তিনি। তবে রিপোর্টে কি আছে তা জানা যায়নি। বেগম জিয়ার আইনজীবীরা বলছেন, রিপোর্ট সন্তো’ষজনক না হলে বেগম জিয়ার অ’সুস্থতার বাস্তবচিত্র বো’ঝাতে তাকে সশ’রীরে আ'দালতে হাজির করার আবেদন করবেন।

অন্যদিকে দুদক আইনজীবী বলেন, অ’পরাধের গভীরতা বিবেচনায় আপিল বিভাগ বেগম জিয়ার জামিন খা’রিজ হয়েছে, আবারো হাইকোর্টে জামিন খা’রিজ হবে। মু’ক্তি পেতে হলে বেগম জিয়াকে চ্যারিটেবল ও অরফানেজ দুর্নী’তি মাম’লায় জা’মিন পেতে হবে। এর আগে ২৩ ফেব্রুয়ারি জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মা’মলায় দ’ণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসা সম্পর্কিত তিন অবস্থার তথ্য জানতে চান হাইকোর্ট।মেডিকেল বোর্ডের সুপারিশ অনুসারে খালেদা জিয়া অ্যাডভান্স থেরাপির জন্য সম্মতি দিয়েছেন কিনা, সম্মতি দিলে চিকিৎসা শুরু হয়েছে কিনা এবং বর্তমান তার কী অবস্থা তা জানিয়ে প্রতিবেদন বুধবারের মধ্যে দিতে বলা হয়। দুর্নী’তির মা'মলায় দ’ণ্ডিত হয়ে দুই বছর ১৯ দিন ধরে কারা'গারে রয়েছেন বেগম জিয়া। এরমধ্যে প্রায় ১০ মাস ধরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি।