বাংলাদেশে বাড়ছে করোনা আতঙ্ক, সরকারের বিরু'দ্ধে গাফিলতির অ'ভিযোগ

বিশ্বব্যাপী দ্রুত ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসে আ'ক্রান্ত হয়ে মৃ'ত্যুর মিছিল থামছেই না। মানুষের মাধ্যমে ছড়ানো এ ভাইরাসে চীনে প্রতিদিন গড়ে ৫০-৬০ জনের প্রাণহানি ঘটছে। ভাইরাসটির শনাক্তস্থলে প্রতিনিয়ত আ'ক্রান্ত হচ্ছে বাসিন্দারা। কেবল তাই নয়, চীনের সীমানা পেরিয়ে ভাইরাসটি এরই মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে আরও অন্তত ২৮টি দেশে।

সদ্য বাংলাদেশের সংসদে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাঁড়ায় করোনা ভাইরাস। অ'ভিযোগ ওঠে, বিমানবন্দরে চীন ফেরত যাত্রীদের করোনা ভাইরাস পরীক্ষায় গাফিলতি করা হচ্ছে। সংসদে অনির্ধারিত আলোচনায় জাতীয় পার্টির সাংসদ মুজিবুল হক এই অ'ভিযোগ তুলে এ বি'ষয়ে জনগণকে আশ্বস্ত করতে সংসদে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বিবৃতি দাবি করেন। চীন থেকে ফেরত আসা এক মহিলার ফেসবুক লাইভ নিয়ে প্রকাশিত একটি সংবাদ উ'দ্ধৃত করে মুজিবুল হক অ'ভিযোগ করেন, ঢাকার হজরত শাহজালাল বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর যাত্রীদের পাঁচ ঘণ্টা অ’পেক্ষা করতে হয়েছে। কোনও চিকিৎসক ছিলেন না। স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়নি। পাঁচ ঘণ্টা পর লিখে দেওয়া হয়েছে, তাঁদের পরীক্ষা করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘বিমানবন্দরে করোনা ভাইরাস পরীক্ষায় গাফিলতি, অবহেলার অ'ভিযোগ পাওয়া গেছে। রাতে কিছু যাত্রী পরীক্ষা ছাড়াই বেরিয়ে গেছেন।’ এ খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

গত ২১ জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৭ হাজার মানুষ চীন থেকে বাংলাদেশে এসেছেন। তাঁদের মধ্যে ৩১২ জন বাংলাদেশিকে রাজধানীর আশকোনা হজ ক্যাম্পে ১৪ দিনের জন্য আলাদা করে (কোয়ারেন্টাইন) রাখা হয়েছে। আর ২০ চীনা নাগরিক আছেন পায়রা বন্দরে কোয়ারেন্টাইনে। কিন্তু বাকিদের স্বাস্থ্য পরিস্থিতির পূর্ণাঙ্গ কোনও তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। এ বি'ষয়ে উদ্বেগ রয়েছে জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মধ্যে। সরকারের স্বস্তি হচ্ছে, এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আ'ক্রান্ত কেউ শনাক্ত হয়নি। তবে এই ভাইরাস চীনসহ বিভিন্ন দেশে যেভাবে ছড়াচ্ছে, তাতে আশঙ্কা বেড়েই চলছে।