অবশেষে নেইমা’র নাটকের চূড়ান্ত সমাপ্তি ঘটছে

সম্প্রতি নেইমা’র দল পরিবর্তন নিয়ে আন্তর্জাতিক মিডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, ব্রাজিল তারকার দর ইস্যুতে ঐকমত্যে পৌঁছেছে বার্সেলোনা ও পিএসজি। তাকে ফেরাতে ২০০ মিলিয়ন ইউরো দিতে রাজি সাবেক ক্লাব।

প্রথম’দিকে বার্সেলোনা চেয়েছিল, তাদের ডিফেন্ডার জঁ ক্লেয়া তোদিবো, মিডফিল্ডার ইভান রাকিতিচ এবং ফরোয়ার্ড উসমান দেম্বলেকে পিএসজিকে ধারে দিতে। সে সঙ্গে ১০০ মিলিয়ন ইউরো। কিন্তু বি’ষয়টিতে রাজি ছিল না পিএসজি। তাদের দাবি ২০০ মিলিয়ন ইউরো।

কিন্তু এখন শোনা যাচ্ছে, প্রথম দুজনকে পাকাপাকি ছেড়ে দেবে বার্সা। আর দেম্বেলেকে দেওয়া হবে এক মৌসুমের জন্য ধারে। যদিও তিন জনের কেউই ক্লাব ছাড়তে রাজি নন। দেম্বেলের এজেন্ট পরিষ্কার বলে দিয়েছেন, তার ফুটবলার ২০০ ভাগ বার্সাতে থাকবে।

এদিকে রাকিটিচরা যেতে না চাইলে বাধ্য হয়ে অনেক বেশি টাকা দিয়ে নেইমা’রকে বার্সায় নিতে হবে। তাই ব্রাজিলীয় তারকার আবার মেসির সঙ্গে খেলার স্বপ্ন সত্যি হওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা কাটেনি। আঁতোয়ান গ্রিজ়ম্যানকে আতলেতিকো মাদ্রিদ এবং ফ্রেঙ্কি দে জংকে আয়াখস থেকে নিতে ইতোমধ্যেই প্রচুর খরচ করে ফেলেছে বার্সা। শুধুমাত্র আর্থিক কারণেই ব্রাজিলীয় তারকার বার্সায় ফেরা আ’টকে যেতে পারে।

পিএসজির ম্যানেজার টমাস টুখেল জানিয়েছেন, এসপ্তাহে মেসের বিপক্ষে ম্যাচে খেলবেন না নেইমা’র। এটা পরিষ্কার যে, প্যারিসের ক্লাবেও সাবেক বার্সা তারকাকে নিয়ে ধোঁয়াশা কাটেনি। সোমবার স্পেনে ফুটবল দলবদলের শেষদিন। হতে পারে এই সময়ের মধ্যে কী হয় দেখতেই পিএসজি ম্যানেজার অপেক্ষা করছেন।

টুহেল বলেছেন, ‘নেইমা’র কত বড় ফুটবলার তা আমাকে বলে দিতে হবে না। যে কোনও কোচই ওকে দলে পেলে খুশি হবে। আমি সবসময়ই চাই ও পিএসজিতে থাকুক। কিন্তু আমা’র চাওয়া, না চাওয়ায় কিছু আসে যায় না। সব কিছু নেইমা’র নিজে আর ক্লাবের কমর্কতারা চূড়ান্ত করবে। আমরা শুধু অপেক্ষা করতে পারি।’